সাভার প্রতিনিধিঃ ঢাকার সাভারে ১৪ বছরের এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সোহেল রানা ওরফে ড্যান্সার রানা’র বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ২৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার এসআই শহিদুল ইসলাম। ২৩ ফেব্রুয়ারী রাতে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা রানী বেগম সোহেল রানাকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন।

রানী বেগম বলেন, গত ৮/৯ মাস আগে তার মেয়ে রিয়া (১৪) কে রানা’র বাসার সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় জোরপূর্বক রানার ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করে রাখে, ঐ ভিডিও প্রকাশ ও প্রাণনাশের ভয় দেখিয়ে মাঝে মাঝে তার মেয়েকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে আসছে, ভয়ে এতোদিন চুপ থাকলেও বর্তমানে অতিষ্ট হয়ে রিয়া তার মাকে সবকিছু জানায়।

পুলিশ জানায়, সাভার পৌর ইমান্দিপুরের ১৪ বছরের কিশোরীকে ভয় গত কয়েকমাস ধরে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে আসছিলেন সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানা। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় উপস্থিত হয়ে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে সোহেল রানাকে বিবাদী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

বর্তমানে পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা সোহেল রানা। আজ রাতের প্রেস বিজ্ঞপ্তি তে সাভার উপজেলা ছাত্রলীগ এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত প্যাডে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে সোহেল রানাকে সাভার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় এবং সেই সাথে ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম জানান, ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x