আবির হোসেন সজল, লালমনিরহাট ঃ

বিগত দিনের যে কোনো সময়ের সাথে বর্তমান সমসাময়িক সময়ে লালমনিরহাটের চলমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির তুলনা করলে হলফ করে বলতে পারি বর্তমান সময়কেই শ্রেষ্ঠ সময় বলে স্বীকৃতি দেবে লালমনিরহাটের গণমানুষ , একথা বলার অপেক্ষা রাখে না।

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন লালমনিরহাট পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম পাপ্পু। সোমবার (১৪ মার্চ) দেওয়া শফিকুল ইসলাম পাপ্পুর ফেসবুক স্ট্যাটাসটি বাংলা ৫২ নিউজ পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো:—

প্রথাভিত্তিক সামাজিক অপরাধ দমন ও সামাজিক নিরাপত্তা বলয় প্রতিষ্ঠা এবং মাদক ধর্ষন বাল্যবিবাহ যৌতুক এর মত সামাজিক ব্যাধীর বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সে থেকে জেলা প্রশাসন এর সকল সফলতার মুকুটমনি যার মস্তকে শোভিত হয় – শ্রদ্ধেয় আবিদা সুলতানা ( বিপিএম,পিপিএম) পুলিশ সুপার মহোদয় লালমনিরহাট ।

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী জনতার সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করার আমরন ব্রত নিয়ে – কখনো মা হয়ে মমতার আঁচল বিছিয়ে হয়েছেন দেবী লক্ষীর প্রতিরূপ হয়েছেন আবার কখনো অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছিন্নমস্তা রুদ্রচন্ডা কালীর রুপ ধারন করে সংহার করে চলছেন সামাজিক দানবকূলের।

পুলিশ সদর দপ্তর এর সহকারী মহাপরিদর্শকের দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন। ২০১৯ সালের পুলিশ সপ্তাহের প্যারেডে কমান্ডার এর দায়িত্ব পালন করেন।

দেশের ইতিহাসে তিনি দ্বীতিয় নারী পুলিশ কর্মকর্তা যিনি ন্যাশনাল প্যারেড কমান্ডার এর দায়িত্ব পালন করেছেন। পুলিশ সপ্তাহ প্যারেডে তিনি কন্টিজেন কমান্ডার হিসেবে চারবার ও সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসাবে চারবার দায়িত্ব পালন করেছেন।

পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক(এআইজি) হিসেবে ইন্টর্নাল ডিসিপ্লিন এন্ড প্রফেশনাল ষ্টান্ডার্ড বিভাগে দায়িত্বরত ছিলেন। এছাড়াও পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অত্যান্ত নিষ্ঠার সাথে।

আপনার প্রত্যেকটি বিনিদ্র রাত্রি জাগরন –
লালমনিরহাটের অপামর শান্তিপ্রিয় জনগণ কে নিশ্চিন্তে ঘুমানোর সাহস সঞ্চার করে।

লালমনিরহাট শহরে প্রগতিশীল পতাকার ছায়াতলে আশ্রয় প্রশ্রয়ে ফুলে ফেঁপে ওঠা সুশ্রী মুখাবয়বের অন্তরালে লুকিয়ে থাকা হিনমন্য ও নষ্ট মানসিকতা লালন করা কতিপয় সুশীলদের মুখোশ উন্মোচন আপনার হাত দিয়ে হবে বলেই লালমনিরহাটের মানুষ বিশ্বাস করে।

ভাল থাকবেন-সুস্থ্য থাকবেন-সুন্দর থাকবেন
মুজিববাদ এর বীজমন্ত্র অনাগত প্রজন্মের চেতনায় বপনের নিমিত্তে আপনার স্থান হোক আমাদের লেখা গদ্য কবিতায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x