05 December, 2020
শিরোনাম

ইতালিগমনেচ্ছুদের দালালের প্রলোভনে না পড়ার অনুরোধ

 18 Nov, 2020   89 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

ইতালিতে কর্মী নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে দালালদের প্রলোভনে পড়ে কোনো অবৈধ আর্থিক লেনদেন না করার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে সিজনাল ও নন-সিজনাল কর্মী হিসেবে ইতালি যেতে আগ্রহীদের জন্য জনসচেতনতামূলক তথ্য পাঠানো হয়েছে

বুধবার (১৮ নভেম্বর) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ইতালি সরকার সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে মৌসুমি ও অমৌসুমি কর্মী নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে। গত ১২ অক্টোবর ইতালি সরকার বেশ কিছু দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশের নাম অনুমোদিত দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে। ফলে বাংলাদেশের কর্মীদের জন্য ইতালিতে যাওয়া এবং সেখানে কাজ করার সুযোগ তৈরি হয়েছে।  

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ফ্লুসি ডিক্রির (Flussi Decree) আওতায় ইতালি যেতে আগ্রহী বাংলাদেশিদের প্রলোভিত করতে বিভিন্ন দালালচক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তাই সংশ্লিষ্ট সবার অবগতির জন্য তথ্য জানানো হচ্ছে।  

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, ইতালিতে নিয়োগকারী/মালিক তার জন্য নির্ধারিত SPID ইমেইল থেকে তিনি যাকে নিয়োগ দিতে চান তার নাম, পাসপোর্ট নম্বর উল্লেখ করে ইতালির স্থানীয় ডিসি অফিসে অনাপত্তিপত্রের জন্য আবেদন করতে হবে। নিয়োগকারী/মালিকের আয়সহ অন্য বিষয় বিবেচনা করে অনাপত্তিপত্র দেওয়া হলে এ অনাপত্তিপত্র তিনি বাংলাদেশে ব্যক্তির কাছে পাঠাবেন। ব্যক্তি উক্ত অনাপত্তিপত্রসহ ইতালি দূতাবাসে ভিসার জন্য আবেদন করবেন। ভিসা নিয়ে ইতালিতে এসে তিনি নিয়োগকারী/মালিকের সঙ্গে সে দেশে ডিসি অফিসে গিয়ে চাকরির চুক্তিপত্র সই করবেন।

এছাড়া এ প্রক্রিয়ায় আবেদন দাখিলের সময় সরকার নির্ধারিত রেভিনিউ স্ট্যাম্প বাবদ ১৬ ইউরো ফি পরিশোধ করতে হবে। যারা আবেদন দাখিলের জন্য সংশ্লিষ্ট হেল্প ডেস্কের সহায়তা নেবেন তাদের হেল্প ডেস্কের সার্ভিস চার্জ বাবদ একটি ফি পরিশোধ করতে হতে পারে, যা ক্ষেত্র বিশেষে ৫০-১০০ ইউরো পর্যন্ত হতে পারে।  

আবেদন দাখিলের ক্ষেত্রে এছাড়া অন্য কোনো খরচ নেই। ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাপ্ত আবেদন বাছাই করে প্রত্যেক যোগ্য আবেদনকারীর অনুকূলে আলাদা আলাদা অনাপত্তিপত্র ইস্যু করা হবে। অনাপত্তিপত্র পাওয়ার পর নির্ধারিত ভিসা ফি পরিশোধ করে নিজ নিজ দেশে অবস্থিত ইতালিয়ান দূতাবাসে ভিসার আবেদন জমা করতে হবে।

এ অবস্থায় ইতালিতে কর্মী নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে দালাল বা মধ্যস্বত্বভোগীদের ভুয়া প্রলোভনে পড়ে কোনো অবৈধ বা অনিয়মতান্ত্রিক আর্থিক লেনদেন না করার বিষয়ে বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীদের ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রবাসী কল্যাণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হলো।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ