23 November, 2020
শিরোনাম

শরীর ও মনের ক্লান্তি ঝরিয়ে দেয় লবঙ্গ

 13 Oct, 2020   31 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

তরকারিতে মসলা হিসেবে অনেকেই লবঙ্গ ব্যবহার করেন। তাদের বেশির ভাগই হয়তো জানেন না, এটি এক ধরনের ফুল। এর উৎপত্তি ইন্দোনেশিয়ায়। তবে আফ্রিকা ও এশিয়ার বহু দেশেই চাষ হয় ফুলটির।

রান্নার পাশাপাশি আয়ুর্বেদিক ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় লবঙ্গ। নানা গুণের এ ফুলটি পুষ্টির ‘পাওয়ার হাউজ’ হিসেবেও পরিচিত।

প্রায় এক গ্রাম লবঙ্গ থেকে পাওয়া যায় ৩.৫ ক্যালরি শক্তি। নেই মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কোলেস্টেরলও।

এতে দেহের জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাঙ্গানিজ, লৌহ, সেলেনিয়াম, পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়ামের মতো খনিজ পদার্থ রয়েছে। এটি পরিপাকনালির জন্যও বিশেষ উপকারী।

মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়নে লবঙ্গ অতুলনীয়। তুলসী, পুদিনা, এলাচ ও লবঙ্গ মেশানো শরবত মানসিক চাপ দূর করতে সহায়তা করে।

ভিটামিন এ, সি, ই ও ক্যালসিয়াম থাকা লবঙ্গকে আস্ত অথবা গুঁড়ো অবস্থায় রান্নায় ব্যবহার করা হয়। এশিয়া ও ইউরোপ মহাদেশের প্রায় সব দেশেই এর ব্যবহার রয়েছে। চীনা ও জাপানিরা ধূপ হিসেবে এর ব্যবহার করে থাকে।

লবঙ্গ দাঁতের ব্যথা দূর করে; ক্ষয় নিরাময় করে মাড়ির। বেশির ভাগ টুথপেস্টের সাধারণ উপকরণ এটি।

সর্দি-কাশির মহৌষধ হিসেবে লবঙ্গ অনেক বছর ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। সাইনোসাইটিস রোগ নিরাময়েও এটি বেশ উপকারী।

লবঙ্গ কম উদ্দীপক। এর সুবাস অবসাদ দূর করে, শরীর ও মনের ক্লান্তি ঝরিয়ে দেয়। যৌন রোগেও এর বহুল ব্যবহার আর্য়ুবেদিক শাস্ত্রে রয়েছে।

রক্তে শর্করা থাকা রোগীদের জন্যও উপকারী লবঙ্গ। ২০০৬ সালের এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, ডায়াবেটিস রোগীরা রোজ ১ থেকে ৩ গ্রাম লবঙ্গ খেলে শর্করার পরিমাণ অনেকটাই কমে যায়।

সূত্র: এনডিটিভি।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ