আর্ন্তজাতিক বাজারে গত সপ্তাহে সোনার দামে বড় পতন হয়েছে। দাম কমেছে দুই শতাংশের বেশি। এতে প্রতি আউন্স সোনার দাম ৪০ ডলারের বেশি কমে ১৯৫০ ডলারের নিচে নেমেছে।

তবে আর্ন্তজাতিক বাজারে সোনার দামে বড় পতন হলেও আপাতত দেশের বাজারে দাম কমানোর পরিকল্পনা নেই বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস)।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরু করার পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দামে ব্যাপক অস্থিরতা দেখা যাচ্ছে। হুট করে সোনার দামে বড় উত্থান, এরপর আবার বড় পতনের ঘটনা ঘটছে গত দুই মাস ধরেই।

এরপর রোজা শুরু হলে দেশের বাজারে ঈদকেন্দ্রিক স্বর্ণালঙ্কারের বিক্রি কিছুটা বেড়ে যায়। যার প্রভাব পড়ে দামেও। বিশ্ববাজারে খুব একটা দাম না বাড়লেও গত ১২ এপ্রিল থেকে সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে ৭৮ হাজার ৮৪৯ টাকা নির্ধারণ করে বাজুস।

গত এক সপ্তাহে বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স সোনার দাম ২ দশমিক ২০ শতাংশ বা ৪২ দশমিক ৪৮ ডলার কমেছে। এর মধ্যে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেই কমেছে ২০ দশমিক ৫০ ডলার বা ১ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ। এতে প্রতি আউন্স সোনার দাম দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৩১ ডলার।

এদিকে সোনার পাশাপাশি গত এক সপ্তাহে বিশ্ববাজারে রুপার দামেও বড় পতন হয়েছে। এক সপ্তাহে ৬ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ কমে প্রতি আউন্স রুপার দাম দাঁড়িয়েছে ২৪ দশমিক ১২ ডলারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x