ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের ফলে গম ও দানাদার শস্য রপ্তানি ব্যাহত হওয়ায় বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম মার্চ মাসে “সর্বোচ্চ পর্যায়ে” পৌঁছেছে।

শুক্রবার (৮ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, মার্চ মাসে বিশ্ব খাদ্যের দাম প্রায় ১৩ শতাংশ বেড়ে নতুন রেকর্ডে পৌঁছেছে। মূলত শস্য এবং ভোজ্য তেলের বাজারে অশান্তির জেরে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

খবরে আরও বলা হয়, বিশ্বব্যাপী খাদ্য উৎপাদন, কেনাবেচা ও পরিবহনের হিসেব রাখা জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) খাদ্য মূল্য সূচকে ফেব্রুয়ারিতে ১৪১.৪ পয়েন্ট ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও মার্চে তা দাঁড়িয়েছে ১৫৯.৩ পয়েন্টে।

এর আগে পরিসংখ্যানে ফেব্রুয়ারিতেও রেকর্ড দাম বেড়ে ১৪০.৭ পয়েন্টে ঠেকেছিল খাদ্যের দাম।

এফএও জানিয়েছে, তাদের খাদ্য মূল্য সূচক ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চ মাসের মধ্যে ১২.৬ শতাংশ বেড়েছে।

প্রসঙ্গত, কৃষ্ণ সাগরের মাধ্যমে গম, ভুট্টা, বার্লি এবং সূর্যমুখী তেলের প্রধান রপ্তানিকারক দেশ রাশিয়া এবং ইউক্রেন। ছয় সপ্তাহ আগে থেকে চলা রুশ আগ্রাসনের ফলে রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ইউক্রেন। রাশিয়া এবং ইউক্রেন থেকেই বিশ্বের মোট গমের ২৫ শতাংশ রফতানি হয়।

সানফ্লাওয়ার বীজ এবং তেলেরও অর্ধেক এই দুটি দেশে উৎপাদিত হয়। ইউক্রেন সারা বিশ্বের কাছে অনেক ভুট্টাও বিক্রি করে।

পূর্ব পশ্চিম

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x