ইউক্রেন সংকটের প্রভাবে আন্তর্জাতিক বাজারে খাদ্যপণ্যের দাম ৮-২০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের খাদ্য সংস্থা। খবর: বিবিসি

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রাথমিক মূল্যায়নে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা বলেছে, সম্ভাব্য দীর্ঘস্থায়ী সংকটকালীন সময়ে ইউক্রেনের চাষিরা ফসল উত্তোলন করতে পারবেন কিনা, এটা নিশ্চিত নয়। তা ছাড়া রাশিয়ার খাদ্য রপ্তানি ঘিরেও অনিশ্চয়তা রয়েছে।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার ধারণা, ইউক্রেনের সাধারণ শীতকালীন খাদ্যশস্য, ভুট্টা, সূর্যমুখী বীজের ২০-৩০ শতাংশ রোপণ করা হবে না বা অনাবাদি থাকবে।

রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম গম রপ্তানিকারক, যেখানে ইউক্রেন পঞ্চম বৃহত্তম। এই ২ দেশ যৌথভাবে বিশ্বের ১৯ শতাংশ বার্লি, ১৪ শতাংশ গম এবং ৪ শতাংশ ভুট্টার জোগান দেয় এবং খাদ্যশস্যের হিসাবে বৈশ্বিক চাহিদার এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি রপ্তানি করে।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এই সংকটের প্রভাবে ২০২২-২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্বজুড়ে অপুষ্টির শিকার মানুষের সংখ্যা ৮ থেকে ১২ মিলিয়নে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x