#মহানবী হযরত মোহাম্মদকে (সা.) নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির মুখপাত্র নূপূর শর্মার বক্তব্যের পর থেকেই এই নিয়ে বিতর্ক চলছে। গত মাসের শেষদিকে এক টিভি বিতর্ক শোতে নূপূর ইসলাম এবং মোহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করায় বিজেপি তাকে সাসপেন্ড করেছে। এই আবহে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের একটি বক্তব্য ভাইরাল হচ্ছে। বলা হচ্ছে, নবী মোহাম্মদকে (সা.) নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় পুতিন ভারত সরকারের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সম্প্রতি পুতিনের একটি বক্তব্য বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে ভাইরাল। বলা হচ্ছে যে পুতিন বলেছেন, নবী মোহম্মদকে (সা.) অবমাননা করা ধর্মীয় স্বাধীনতার লঙ্ঘন এবং ইসলামে বিশ্বাসী মানুষের পবিত্র অনুভূতিতে আঘাত করে। এই পোস্টগুলো শেয়ার করা হচ্ছে ভারত সম্পর্কে পুতিনের বক্তব্য হিসেবে। একাধিক পেজ থেকে এমন অনেক পোস্ট শেয়ার করা হয়েছে। তবে এই পোস্টের সত্যতা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

তবে পুতিনের এই উদ্ধৃতির সত্যতা যাচাই না করেই অনেক ভারতীয় নেতাও এসব পোস্ট শেয়ার করেছেন। কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত তামিলনাড়ুর নেতা জে আসলাম বাশাও পুতিনের এই পোস্টটি শেয়ার করেন। পুতিনের এই বক্তব্যকে টুইট করে ভারতের নেতাদের এর সঙ্গে যুক্ত করেছেন বাশা। সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদী, অমিত শাহকেও ট্যাগ করেন। যদিও সত্য হল পুতিন ভারতের ইস্যুতে ইসলাম ও নবী সম্পর্কে কোনও বক্তব্য দেননি। এই ধরনের পোস্ট বিভ্রান্তিকর এবং সত্যের সাথে কোনও সম্পর্ক নেই।

তবে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা তাস ২০২১ সালের ২৩ ডিসেম্বর একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছিল, পুতিন এক বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন যে, নবী মোহাম্মদকে (সা.) অবমাননা করা ধর্মীয় স্বাধীনতার লঙ্ঘন এবং যারা ইসলামে বিশ্বাসী তাদের পবিত্র অনুভূতিতে আঘাত করেছে। সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ফ্রান্সের চার্লি হেবদো এবং ইসলাম বিতর্ক প্রসঙ্গে পুতিনের এই বক্তব্য এসেছে। সেই বক্তব্যকেই এখন ভারতের প্রতি পুতিনের ক্ষোভ বলে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x