করোনার প্রকোপের মধ্যে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে অমর একুশে বইমেলা। এই মেলা ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হলেও সংক্রমণ কমে এলে মেলার সময় বাড়ানো হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

শুক্রবার বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলার প্রস্তুতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী এই ইঙ্গিত দেন।

প্রতিমন্ত্রী খালিদ বলেন, ‘এবারের মেলার যে সময়কাল দুই সপ্তাহ। আসলে আমরা অভ্যস্ত হয়ে গেছি, বইমেলা ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ থেকে শুরু হয়ে ২৮ তারিখে শেষ হয়। কিন্তু কোভিডের কারণে ১ তারিখ থেকে শুরু করতে পারিনি। ১৫ তারিখে শুরু করতে পারবো বলে আশাবাদী। যদি কোভিড সংক্রমণের হার কমে আসে, তাহলে চেষ্টা করবো, মেলার সময় বৃদ্ধি করার জন্য। কারণ ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হলেও অনেক স্টলের কাজ শেষ হবে না। প্রতি বছর আমরা দেখি যে, মেলা শুরু হওয়ার পর দুই চার দিন লেগে যায় মেলার পূর্ণতা লাভ করতে, এবারও তাই হবে। সে কারণে আমরা চাই, যেন মেলার সময়টা বৃদ্ধি করা যায়।’

বইমেলায় আসা দর্শনার্থীদের টিকা সনদ লাগবে কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমরা টিকা সনদ নিয়ে আসার জন্য বলেছি। দেখুন, যারা মেলায় আসবেন, তাদেরও একটা দায়িত্ব রয়েছে। তারা যদি দায়িত্বশীল আচরণ করেন, তাহলে আমাদের জন্যও ভালো হয়। আমরা চাইছি মেলার সময় বাড়াতে। অনলাইন বুকিংয়েরও জন্যও একটা চিন্তা-ভাবনা রয়েছে।’

মেলার প্রস্তুতি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘কিছু সমস্যা রয়েছে দেখলাম, সেগুলো আমরা সমাধান করে নেব। আসলে আমরা একটা অনিশ্চয়তার মধ্যে ছিলাম, মেলা করতে পারবো কী পারবো না, একটা দোলাচলের মধ্যে ছিলাম। শেষ পর্যন্ত আমরা আশাবাদী যে, প্রধানমন্ত্রী ১৫ ফেব্রুয়ারি মেলার উদ্বোধন করবেন।’

এর আগে গত বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, বইমেলা প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে শুরু হয়ে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে। তবে দর্শনার্থীরা রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন এবং রাত ৯টায় মেলার আলোক বাতি বন্ধ করে দেওয়া হবে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবারসহ অন্যান্য সরকারি ছুটির দিনে মেলা বেলা ১১টা এবং ২১ ফেব্রুয়ারি মেলা সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে রাতে একই সময়ে শেষ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x