27 January, 2021
শিরোনাম

বিষাদে বিশ্ব অর্থনীতি, থোড়াই কেয়ার বাংলাদেশের

 01 Jan, 2021   48 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

রিজার্ভ রেমিট্যান্সে রেকর্ড হয়েছে, সেতু জোড়া দিয়েছে পদ্মার দুই তীর, রফতানির পালে লেগেছে নতুন হাওয়া। বিষাদে ঢাকা বিশ্ব অর্থনীতির বিপরীতে বছরজুড়ে এমনই সব সুখবর দিয়েছে বাংলাদেশ। এরপরও করোনাঝড়ে কর্মহীন হয়েছে বহু মানুষ, বন্ধ হয়েছে ছোটখাটো অনেক উদ্যোগ, যা নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলেও হতাশা নেই নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে। চলুন জেনে নেই, অর্থনীতির খেরোখাতায়, বিদায় নেওয়া বছরে ঠিক কেমন ছিল বাংলাদেশ?বিজ্ঞজনরা বলছেন, করোনা মহামারিতে দুই কদম পেছালেও একদমই দমে যায়নি বাংলাদেশ। বরং সব বিপর্যয় পায়ে ঠেলে ফিরে এসেছে প্রবল শক্তি নিয়ে।


বিদায় নেওয়া বছরের শুরুতেই করোনার আগমনে অস্থির হয়ে পড়ে গোটাবিশ্ব, মাত্র তিন মাসের মধ্যেই তা হানা দেয় বাংলাদেশেও। এরপর সরকার ঘোষিত দীর্ঘ লকডাউন, কর্মহীন হতে থাকে বহু মানুষ, বন্ধ হতে থাকে ছোট বড় অসংখ্য উদ্যোগ। রফতানি আয় নেমে আসে তলানিতে। কিন্তু সাহস হারায়নি কেউই, যার ফল আসে মাস ছয়েক পর।

মূলত বছরের মাঝামাঝি সময়ে সরকারি প্রণোদনা প্রাণসঞ্চার করে থমকে থাকা অর্থনীতির প্রাণে। এর সঙ্গে প্রত্যেকটি মানুষের নিজ নিজ অবস্থান থেকে জীবন আর জীবিকার প্রয়োজন মেটানোর তাগিদ, দুইয়ে মিলে একটা শক্ত ভিত পায় দেশের অর্থনীতি। সেপ্টেম্বর থেকেই ফুলে ফেঁপে বড় হতে থাকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। পরের কয়েক মাসে তো তা অতীতের সব রেকর্ডই ছাড়িয়ে যায়। একইভাবে রেকর্ড হতে থাকে প্রবাসীদের পাঠানো আয় রেমিট্যান্সেও। এর সঙ্গে যোগ হয় কৃষি খাতে অভূতপূর্ব সাফল্য। আর অর্থনীতির এসব শাখায় ভর করেই সব শঙ্কা দূর করে সরকার।বছরের একদম শেষভাগে একরকম আশীর্বাদ হয়ে আসে পদ্মা সেতু। এই এক প্রকল্পের অগ্রগতিই মহামারির দুঃখ ভুলিয়ে দেশজুড়ে আনে উৎসবের উপলক্ষ। কৃষি ও পরিকল্পনা, সরকারের দুই মন্ত্রীই বলছেন, পদ্মা সেতু পরিণত হয়েছে জাতীয় গৌরবে। পাশাপাশি দেশজুড়ে শতভাগ বিদ্যুতায়নের বিষয়টিও সাফল্যের পালে লাগিয়েছে নতুন রং। 


কিছু সংকট যে নেই তা নয়, তবে সরকার মনে করছে নতুন বছরের শুরুতে আশায় বুক বাঁধার মতো উপলক্ষও বাংলাদেশের মানুষের সামনে একেবারে কম নেই।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ