17 May, 2021
শিরোনাম

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাপান শাখার কমিটি দেওয়ার নামে প্রবাসীর ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা

 02 May, 2021   142 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাপান শাখার আহবায়ক করে পূনাঙ্গ কমিটি গঠনের জন্য দেওয়ার নামে জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার নামে এক জাপান প্রবাসীর নিকট ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ঢাকাস্থ অটোম্যাক্স ঢাকা প্রাইভেট লিমিটেড নামক প্রতিষ্ঠানের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। চাহিদা অনুযায়ী ১০ লাখ টাকা দেওয়ার পরও আওয়ামী লীগের জাপান শাখার কমিটির আহবায়ক কমিটি পূনাঙ্গ কমিটি না বানানোর অভিযোগে ঢাকার মূখ্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ২০ নম্বর আদালতে অভিযুক্তদের বিবাদী করে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীর ভাই আতিকুর রহমান শিপন তরফদার। তার বাড়ি জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার চর পাকেরদহ গ্রামে।
মামলা সূত্রে জানাযায়,অটোম্যাক্স ঢাকা প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি ইমরান হোসেইন (৩৮) এবং মার্কেটিং অফিসার রিয়াজুল ইসলাম (৩০) উভয় আওয়ামী লীগের সমর্থক। অপরদিকে, মামলার বাদি আতিকুর রহমান শিপন তরফদার ভাই জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার ও আওয়ামী লীগের সমর্থক। বিবাদীদের সাথে মোবাইল ফোন ও ফেসবুকের মাধ্যমে আলাপে ঘনিষ্ট সর্ম্পক সৃষ্টি হয় জাপান প্রবাসী জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার। এক পর্যায়ে জুলফিকার আলী জুয়েলকে আওয়ামী লীগের জাপান শাখার আহবায়ক করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের জন্য বিবাদীদ্বয় প্রস্তাব দেয়। এরপর জুলফিকার আলী জুয়েলের তরফদার নিকট কমিটির অন্যান্য পদে নামের তালিকা চায় বিবাদীদ্বয়।
পরবর্তীতে জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার কমিটির তালিকা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপের নিকট।
কমিটির অনুমোদন পেতে বিলম্ব হওয়ায় জুলফিকার আলী জুয়েলের ভাই মামলার বাদি আতিকুর রহমান শিপন তরফদার বিবাদী রিয়াজুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করে। রিয়াজুল ইসলাম তাকে জানায়, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহানের ভাতিজা ইমরান হোসেন এক সপ্তাহের মধ্যে কমিটির অনুমোদন করে দিবে। এতে বিবাদীদ্বয় ১০ লাখ টাকা দাবি করে। বিবাদীদ্বয়ের শর্ত মেনে নিয়ে বাদী পক্ষ বিবাদীট প্রতিষ্ঠান অটোম্যাক্স ঢাকা প্রাইভেট লিমিটেডের অনুকূলে চলতি হিসাব নং ১০৩১১০০০৪১০৩৬ এর মাধ্যমে ২০১৯ সালের ৯ সেপ্টেম্বর তারিখে ডাচবাংলা ব্যাংকের বনানী শাখা থেকে ৪ লাখ টাকা প্রদান করে। পরবর্তীত বাকি ৬ লাখ টাকা বিবাদীদের দেয় জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার।
এরপর কমিটির অনুমোদন করিয়ে দিতে নানা তালবাহানা করে বিবাদী ইমরান হোসেন এবং রিযাজুল ইসলাম।
এব্যাপারে সিআর ১৮৬/২০২০ নং ৪২০/৪০৬/৫০৬ পেনাল কোড ধারায় ভুক্তভোগী জুলফিকার আলী জুয়েল তরফদার ভাই আতিকুর রহমান শিপন তরফদার মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত ঢাকার ডিএমপির কাফরুল থানা পুলিশকে তদন্ত করে প্রতিবেদনের নির্দেশ দেন। কাফরুল থানার এসআই শারিফুজ্জামান গত ২৭ ডিসেম্বর ঘটনার সত্যতা পেয়ে বিবাদী ইমরান হোসেন এবং রিয়াজুল ইসলামের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করছেন। বিবাদীদের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি ওয়ারেন্ট ইস্য‚ করেন।
বিবাদীদ্বয় পুলিশী গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে রয়েছে বলে মামলার বাদি আতিকুর রহমান শিপন তরফদার জানান।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ