মোঃ মমিন হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার :
টাঙ্গাইলের কালিহাতিতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে শতশত বসতবাড়ি সহ বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মুখে পড়তে যাচ্ছে ! সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ভয়াবহ অবৈধ বাংলা ড্রেজারের করালগ্রাস থেকে বাঁচতে চায় উপজেলার দক্ষিণ চামুরিয়া গ্রামবাসী। গতকাল সোমবার কালিহাতি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট প্রতিকার চেয়ে প্রায় তিন শতাধিক লোকের গণস্বাক্ষর করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ।

তথ্যসূত্রে জানাযায়, টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার দক্ষিণ চামুরিয়া মৌজা রাঙ্গাইল দহে বাংলা ড্রেজার বসিয়ে বালু ও মাটি উত্তোলনের অভিযোগ তোলেন গ্রামের সকল অসহায় ভূক্তভোগী পরিবার। ভুক্তভোগী মোকদম মোল্লার ছেলে করিম মোল্লা, হাবু মিয়ার ছেলে তোতা মিয়া, মৃত আবেদ আলীর ছেলে আব্দুল হামিদ, মোস্তাব আলীর ছেলে বেলায়েত জানান, সাম্প্রতি কয়েকজন বালু ব্যাবসায়ী মিলে একটি কমিটি গঠন করে। বালু ও মাটি কাটার ব্যাবসায়ী সংঘবদ্ধভাবে জোরপূর্বক বালু/মাটি উত্তোলনের চেষ্টা করছে। ফলে আমাদের গ্রামের দুইটি ঈদগাহ মাঠ, দুইটি কবরস্থান, সেতু, মসজিদ সহ শত শত বসত ঘরবাড়ী ও কৃষিজমি হুমকির মুখে পড়বে।

স্থানীয় ভ্যান চালক কাদের বলেন, ওরা সরকারি দলের নাম ভাঙ্গিয়ে চলে এবং এদের বিরুদ্ধে কথা বলার কেউ নেই। স্থানীয় ৯নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মাটি ব্যাবসায়ী লাল মিয়া জানান, সরকারি দুইটি প্রতিষ্ঠানে মাটির প্রয়োজন তাই আমরা মাটি কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তিনি আরো বলেন, ওদের কি? সরকারি জায়গা থেকে মাটি কেটে সরকারি জমির উপর মাটি ফেলব।

কালিহাতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হুসেইন জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অবৈধ সকল বিষয়ে অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমি যোগদানের পর থেকেই অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আসছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x