মনিরুল ইসলাম:

জীবন যুদ্ধে হেরে না ফেরার দেশে চলে গেছে সৌদি প্রবাসি নাজমুল,পরিবারের সচ্ছলতা ফেরাতে ৯ম শ্রেনীতে পড়ার পাঠ চুকিয়ে গত দুই বছর ৭মাস আগে সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছিল নাজমুল।অল্প বয়সে প্রবাস জীবন কেড়ে নিয়েছে তাকে।নাজমুল মেহেরপুর সদর উপজেলার কুতুব পুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ট্যাংগার মাঠ শিশির পাড়া গ্রামের হাফিজুল ইসলামের ছেলে।মাত্র ২০ বছর বয়সে সংসারের সচ্ছলতা ফেরাতে বড় ভাই হিসাবে লেখাপড়া শেষ না করে প্রবাসে যায় অর্থ উপার্জনের আশায়, সৌদি আরবের একটি বেসরকারী অফিসে ক্লিনার পদে কাজ নিয়ে আশায় বুক বেধে শত কষ্ট বুকে নিয়ে ২বছর ৭মাস পার করে,হঠাত বিধি বাম,গত বুধবার পিক আপের ধাক্কায় মর্মান্তিক যখম হয়ে ৩দিন জীবনের সাথে লড়াই করে গতকাল বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় তার মৃত্যু হয়,মোবাইলের মাধ্যমে নাজমুলের বাবাকে ফোন দিয়ে জানায় নাজমুলের সাথে থাকা বাংলাদেশী বন্ধু,খবর পেয়ে নাজমুলের পরিবারে নেমে আসে শোকের ছায়া, বড় ছেলেকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ পিতা হাফিজুল ইসলাম,মমতাময়ি মা পাগলপ্রায়।নাজমুলের বাবা বলেন,মমতাময়ি দেশমাতা শেখ হাসিনা সরকারের কাছে আবেদন,যেন দ্রুত আমার হারানো ছেলের লাশ আমার কাছে পৌছে দেবার সু ব্যবস্থা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x