শফিকুল ইসলাম সোহেল ,শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি:

নারীদের কর্মসংস্থান, বেকারত্ব দুরীকরণ ও আর্থিক সচ্ছলতার লক্ষ্যে আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে আজ ১৫ জুন (বুধবার) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলায় শরীয়তপুর-৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নাহিম রাজ্জাকের বাসভবনে আমরা রমণীর ‘সেলাই মেশিন প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থান’ প্রকল্পের অধীনে ‘সুতোর খেলা’ নামে একটি সেলাই মেশিন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র উদ্ধোধন করা হয়।

উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র উদ্বোধনের পাশাপাশি আমরা রমণী ‘Door to Door Mobile Entrepreneurs’ প্রকল্পের আওতায় নতুনভাবে নির্বাচিত আরও ৫ জন নারী উদ্যোক্তাদের হাতে ‘উদ্যোক্তা ব্যাগ’ তুলে দিয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আমরা রমণীর কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মালিয়া হোসেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর ৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নাহিম রাজ্জাক ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডামুড্যা ও গোসাইরহাট উপজেলার মহিলা বিষয়ক কর্মকতা ফাতিমা নাহিয়ান, ডামুড্যা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা খানম লাভলী ও গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম,ডামুড্যা প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুল ইসলাম সোহেল ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই আমরা রমণীর সভাপতি মালিয়া হোসেনের শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, “এই এলাকার নারীরা যাতে আত্মনির্ভরশীল ও স্বাবলম্বী হতে পারে সেজন্য আজ থেকে আমরা রমণী ১২টি সেলাই মেশিন ও প্রথম ব্যাচে ২৫ জন মহিলা নিয়ে এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের যাত্রা শুরু করলো। নারীরা এখন আর ঘরে বসে নেই। সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতা দূর করে সকল স্তরের নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে। যারা এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিতে যাচ্ছেন, তারাও সেলাই মেশিনকে নিজেদের হাতিয়ার বানিয়ে আরও দূর পর্যন্ত এগিয়ে যাবেন বলে আমি আশা রাখি। আশা করি এই সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে কাজ শিখে সকল নারী অভাব ঘোচানোর পাশাপাশি নিজেদের বেকারত্বও হ্রাস করবে।”

উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নাহিম রাজ্জাক বলেন, “আমাদের আমরা রমণীর উদ্যোগের সফলতা তখনই হবে যখন আপনাদের সফলতা আসবে। আপনাদের সকল কার্যক্রমে আমি সবসময় ইতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করে আসছি। সেই ভাবনা থেকেই আমরা রমণীকে আরও বড় আকারে প্রতিষ্ঠিত করতে যাচ্ছি। সেইজন্য সবসময় আপনাদের সহযোগিতা কাম্য”

উল্লেখ্য, ‘আমরা রমণী’ আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের এমন একটি অঙ্গসংগঠন যার লক্ষ্য নারীদের অনুপ্রাণিত করা, সংগঠিত করা এবং ক্ষমতায়ন করা। ইতিমধ্যে কয়েক ধাপে প্রশিক্ষণের পর আমরা রমণীর কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মালিয়া হোসেন ও শরীয়তপুর-৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নাহিম রাজ্জাকের উপস্থিতিতে আমরা রমণী মোট দুইটি পর্বে ‘Door to Door Mobile Entrepreneurs’ প্রকল্পের আওতায় নির্বাচিত ২০ জন নারী উদ্যোক্তাদের হাতে ‘উদ্যোক্তা ব্যাগ’ তুলে দিয়েছিল। নির্বাচিত এই নারী উদ্যোক্তারা এখন ঘরে ঘরে গিয়ে চিকিৎসা প্রদান, মহিলা ও শিশুদের স্বাস্থ্যকর পণ্য বিক্রি ও টেলিযোগাযোগ সুবিধা প্রদানসহ ইত্যাদি নানা পরিষেবা প্রদান করে যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x