ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও দেশের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে এমনকি বাড়ি বাড়ি উচ্চগতির ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।

শনিবার ঢাকায় মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে ‘নিজের বলার মতো একটা গল্প’ ফাউন্ডেশন আয়োজিত উদ্যোক্তা মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

টেলিযোগাযোগা মন্ত্রী বলেন, শিল্প, বাণিজ্য এবং শিক্ষাসহ প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে মানুষের জীবন যাপন এখন ডিজিটাল প্রযুক্তিনির্ভর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ডিজিটাল সংযুক্তি ও যথাযথ ডিজিটাল অবকাঠামো তৈরির মাধ্যমে ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার সক্ষমতা অর্জন করেছে। প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উচ্চগতির ইন্টারনেট সংযোগ নিশ্চিত করতে আমরা মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।

তিনি বলেন, প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও দেশের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে এমনকি বাড়ি বাড়ি উচ্চগতির ইন্টারনেট আমরা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছি।

তিনি ডিজিটাল জাতি গঠনে ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ডিজিটাল দক্ষতা না থাকলে আগামীর দুনিয়ায় বসবাস করা যাবে না। তিনি নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েদের সোনার মানুষ আখ্যায়িত করে বলেন, আমাদের ছেলেরা মাত্র তিন মাসের প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করছে।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন তারুণ্যের রাষ্ট্র। বিশ্বের উন্নত দেশগুলো যখন কর্মক্ষম জনসংখ্যার অভাবে ভুগছে, তখন তরুণ প্রজন্মের জন্য বাংলাদেশের জন্য সুযোগের দরজা খুলে গেছে। পপুলেশন ডিভিডেন্ট বাংলাদেশের জন্য বড় সুযোগ। সুযোগ ও পরিবেশ পেলে আমাদের তরুণ প্রজন্ম অসাধ্য সাধন করতে সক্ষম। আমরা সারাদেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযুক্তির সম্প্রসারণের মাধ্যমে ডিজিটাল প্রযুক্তির মহাসড়ক নির্মাণ করছি। প্রযুক্তির এই মহাসড়ক ব্যবহারের সুযোগ কাজে লাগিয়ে তরুণ প্রজন্মকে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে তিনি সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি বিশেষ করে সংশ্লিষ্ট বাণিজ্য সংগঠন ও সামাজিক সংস্থাকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফা জব্বার তরুণদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা যুদ্ধ করে তোমাদের জন্য যে বাংলাদেশ তৈরি করেছি তোমাদের উচিত সেই দেশটাকেই তোমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার সংগ্রামে এগিয়ে আসা।

অনুষ্ঠানে আইএসপিএবির সভাপতি এমদাদুল হকসহ কয়েকজন উদ্যোক্তা তাদের উঠে আসার কাহিনী তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x