#ভারতে বিমানবন্দর ও ফ্লাইটে থাকাকালে যাত্রীদের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে দিল্লি হাইকোর্ট। এর অন্যথা হলে নিয়মভঙ্গকারী যাত্রীকে মোটা অঙ্কের জরিমানা গুনতে হবে। প্রয়োজনে ওই যাত্রীকে বিমান থেকে নামিয়ে দেয়ার মতো কড়া পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একটি জনস্বার্থ মামলায় এ নির্দেশ দেয় হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত মুখ্য বিচারপতি (এসিজে) বিপিন সাংঘির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ।

শুক্রবার আনন্দবাজার অনলাইন এ খবর জানিয়েছে।

ভারতজুড়ে করোনার দৈনিক সংক্রমণ আবারও ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় উদ্বেগ বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় তা প্রায় সাড়ে ৪ হাজারের কাছে পৌঁছেছে। এই আবহে বিমানবন্দর এবং ফ্লাইটে যাত্রীরা যাতে বাধ্যতামূলকভাবে কোভিডবিধি মেনে চলেন, সে জন্য বিমান চলাচল নিয়ামক সংস্থা বা ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন (ডিজিসিএ)-কে কড়া পথে হাঁটার পরামর্শ দিয়েছেন দিল্লি হাইকোর্ট। দেশের আকাশে বিমান পরিবহণের ওই নিয়ন্ত্রক সংস্থার উদ্দেশে হাইকোর্টের নির্দেশ, ‘বিমানবন্দরের পাশাপাশি ফ্লাইটেও যথাযথভাবে কোভিডবিধি প্রয়োগ করতেই হবে। প্রয়োজন হলে বিধিভঙ্গকারীদের জোর করে বিমান থেকে নামিয়ে দেয়া উচিত।’ এমনকি, কোভিডবিধি অমান্য করলে যাত্রীর বিমানে যাতায়াতও বন্ধ করতে নিময়ভঙ্গকারীকে ‘নো-ফ্লাই’ তালিকায় রাখার নির্দেশও দিয়েছে আদালত।

ডিজিসিএ জানিয়েছে, আদালতের নির্দেশানুযায়ী ফ্লাইটে থাকাকালে একমাত্র খাওয়ার সময় মাস্ক খুলতে পারেন যাত্রীরা। যাত্রীদের উদ্দেশে এসিজে-র মন্তব্য, ‘কিছু খাওয়া বা পানীয় গ্রহণের সময় আপনি মাস্ক খুলে ফেলতে পারেন। তবে অন্য সময়ের জন্য উড়ানে মাস্ক পরে থাকার নিয়ম আগে থেকেই চালু রয়েছে।’

আদালতের পর্যবেক্ষণ, বিমানবন্দরে এখনও কোভিডবিধি বলবৎ রয়েছে। ফলে যাত্রীদের তা মেনে চলতেই হবে। কোভিডবিধির কড়া প্রয়োগের উদ্দেশ্যে বিমান সংস্থার চালক, বিমানসেবিকাসহ কর্মীদের জন্য নতুন নির্দেশিকা জারি করার কথাও বলেছে আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x