মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডেলাওয়্যারের বাসভবন থেকে আরও সরকারি নথি পাওয়া গেছে। তবে খুবই অল্প সংখ্যক শ্রেণীবদ্ধ নথি পাওয়া গেছে এবং সেগুলো ইতোমধ্যে বিচার বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে হোয়াইট হাউস।

হোয়াইট হাউসের বিশেষ কৌঁসুলি রিচার্ড সাউবার বৃহস্পতিবার বলেছেন, এই নথিগুলোপও বাইডেনের ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকার সময়কালের। যেগুলো তার ডেলাওয়্যারের উইলমিংটনে বাড়ির গ্যারেজে পাওয়া গেছে।

এক বিবৃতিতে সাউবার বলেন, গ্যারেজ সংলগ্ন একটি কক্ষে একটি অতিরিক্ত এক পৃষ্ঠার নথি পাওয়া গেছে। তবে ডেলাওয়্যারের রেহোবোথ বিচে জো এবং জিল বাইডেনের দ্বিতীয় বাড়িতে কোনও নথি পাওয়া যায়নি।

সাউবার আরও বলেছেন, নথিগুলোর আবিস্কার হওয়ার পরে বিচার বিভাগকে অবিলম্বে অবহিত করা হয়েছিল এবং বিভাগের আইনজীবীরা সেগুলো হেফাজতে নিয়েছিলেন। রেকর্ডগুলি সঠিকভাবে পরিচালনা করা নিশ্চিত করতে প্রশাসন সম্পূর্ণ সহযোগিতা করছে বলে জানান তিনি।

মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, তিনি মেরিল্যান্ডের সাবেক অ্যাটর্নি রবার্ট হুরকে বাইডেনের সংবেদনশীল সরকারী নথি পরিচালনার তদন্তের জন্য বিশেষ পরামর্শদাতা হিসাবে নিয়োগ করছেন।

কয়েকদিন আগেই বাইডেনের ব্যক্তিগত অফিস থেকে তার ভাইস-প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন সময়ের কয়েকটি গোপনীয় সরকারি নথি পাওয়া গেছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো সেই সময়ে জানিয়েছিল, নভেম্বরে ওয়াশিংটনের পেন বাইডেন সেন্টার ফর ডিপ্লোম্যাসি অ্যান্ড গ্লোবাল এনগেজমেন্টে একটি তালাবদ্ধ আলমারি থেকে প্রায় ১০টি ফাইল পাওয়া যায়।

বাইডেন ২০১৭ থেকে ২০২০ পর্যন্ত হোয়াইট হাউস থেকে প্রায় এক মাইল দূরে অবস্থিত পেন বাইডেন সেন্টার অপ্রশাসনিক কাজের জন্য ব্যাবহার করতেন।

এর পরপরই বাইডেনের পূর্বসূরি, ডোনাল্ড ট্রাম্প এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। যিনি দায়িত্ব ছাড়ার পরে গোপনীয় নথি রাখার জন্য তদন্তের মুখোমুখি হচ্ছেন।

ট্রাম্প সোমবার তার সোশ্যাল মিডিয়া সাইট, ট্রুথ সোশ্যাল-এ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, কবে এফবিআই জো বাইডেনের অনেক বাড়িতে, এমনকি হোয়াইট হাউসেও অভিযান চালাবে?

এছাড়াও হাউস ওভারসাইট কমিটির নতুন রিপাবলিকান চেয়ারম্যান কংগ্রেসম্যান জেমস কমার সোমবার বাইডেনের কাগজপত্র পরিচালনা বিচার বিভাগের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এটি আরও উদ্বেগের বিষয় যে বিচার বিভাগের মধ্যে একটি দ্বি-স্তরের বিচার ব্যবস্থা রয়েছে। এখন দেখার বিষয় তারা কীভাবে রিপাবলিকান বনাম ডেমোক্র্যাটদের সাথে আচরণ করে এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট বনাম বর্তমান প্রেসিডেন্টের সাথে কীভাবে আচরণ করে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার তার ডেলাওয়্যার বাড়িতে পাওয়া নথিগুলো সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে, বাইডেন সাংবাদিকদের বলেন, লোকেরা জানে যে আমি শ্রেণীবদ্ধ নথি এবং শ্রেণীবদ্ধ উপকরণগুলিকে গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করি।

তিনি পুনর্ব্যক্ত করেছেন, তার প্রশাসন বিচার বিভাগের পর্যালোচনার সাথে পুরোপুরি সহযোগিতা করছে। তবে হোয়াইট হাউস বাইডেনের অফিসে নথি পাওয়ার বিষয়টি প্রকাশের জন্য কেন দুই মাসের বেশি অপেক্ষা করেছিল সে সম্পর্কে প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকার করেছে।

সূত্র: আলজাজিরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x